মাহাথিরকে দেয়া সমর্থন তুলে নিল বিরোধী জোট


বিরোধী জোট

মালয়েশিয়ায় মাহাথির মোহাম্মদকে দেওয়া সমর্থন তুলে নেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলোর জোট।

মালয় মেইল জানায়, মাহাথিরের পদত্যাগের একদিনের পর এই ঘোষণা দেয় ইউনাইটেড মালয়েশিয়া ন্যাশনাল অর্গানাইজেশন (ইউএমএনও), বারিসান ন্যাশনাল (বিএন) ও মালয়েশিয়ান ইসলামিক পার্টি (পিএএস)।

দুর্নীতির অভিযোগ এনে সোমবার বিরোধী জোটের প্রধান দল ইউএমএনওর সঙ্গে কাজ করতে অস্বীকৃতি জানিয়ে পদত্যাগ করেন মাহাথির। তবে পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী দায়িত্ব গ্রহণের আগ পর্যন্ত মাহাথিরকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনের নির্দেশ দেন দেশটির রাজা।

এদিকে মঙ্গলবার ইউএমএনওর মহাসচিব আনোয়ার মুসা মাহাথিরের প্রতি দেওয়া সমর্থন তুলে নেওয়ার ঘোষণা দেন।

এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘মাহাথির মোহাম্মদকে সমর্থন জানিয়ে বিএন ও পিএসের আইনজীবীদের করা চুক্তিপত্র বাতিল করা হলো। এই মুহূর্তে জনগণের প্রতি আমাদের সমর্থন এবং এই সংসদ ভেঙে দেওয়া হোক। জনগণকেই বিষয়টি নিয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের অধিকার দেওয়া উচিত। ইউএমএনও ও পিএসের পক্ষ থেকে রাজাকে তাদের বার্তা পৌঁছে দেওয়া হয়েছে।’

২০১৮ সালের মে মাসে দ্বিতীয় পর্যায়ে দেশটির ক্ষমতায় আসেন ৯৪ বছর বয়সী মাহাথির মোহাম্মদ। এর আগে তিনি ১৯৮১ সাল থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত টানা ২২ বছর মালয়েশিয়া শাসন করেন।

নির্বাচনে দীর্ঘ ৬০ বছর ক্ষমতায় থাকা বারিসান ন্যাশনালকে হারান তিনি। এই বারিসান ন্যাশনালের নেতা হিসেবেই দেশটির ক্ষমতায় ছিলেন মাহাথির। দ্বিতীয় মেয়াদে রাজনীতিতে ফিরেই তিনি লড়েন আনোয়ার ইব্রাহিমের পাকাতান হারপান দলের সঙ্গে জোট করে।

আনোয়ার ইব্রাহিম জেলে থাকায় প্রধানমন্ত্রী হন মাহাথির। মুক্তির পর ইব্রাহিমের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে এমন সমঝোতা হয় দুইপক্ষের মধ্যে।

তবে রবিবার রাতে দেশটিতে রাজনীতিতে নতুন কিছু ঘটতে চলেছে বলে এমন খবর প্রকাশ্যে আসে। আনোয়ার ইব্রাহিমকে বাদ দিয়ে নতুন সরকার গঠন করতে চলেছেন মাহাথির।

কিন্তু সরকার গঠনে ব্যর্থ হয়ে একদিন পরই রাজার কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন তিনি।

ads