করোনাভাইরাসের জন্য এখন স্পেনকে দুষছে চীন!

১৪৭
করোনা

নতুন করোনাভাইরাস চীনের উহান শহর থেকে ছড়ায়নি বলে এখন উল্টো সুর চড়াচ্ছেন দেশটির শীর্ষস্থানীয় গবেষকেরা।

কমিউনিস্ট সরকারের সিনিয়র স্বাস্থ্য উপদেষ্টা ওয়াং গুয়াংফা দেশটির রাষ্ট্র-পরিচালিত গণমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসকে বলেছেন, নভেল করোনাভাইরাস স্পেনে প্রথম ছড়িয়ে থাকতে পারে।

বার্সেলোনার একটি গবেষণার কথা উল্লেখ করে গুয়াংফা বলেন, ২০১৯ সালের মার্চে স্পেনের বর্জ্য পানির নমুনায় নভেল করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়।

চীন এমন সময় এসব কথা বলছে, যখন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে দেশটিতে করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল খুঁজতে যাওয়ার ঘোষণা এসেছে। করোনার উৎপত্তিস্থল নিয়ে চীন শুরু থেকে বিভ্রান্তিকর তথ্য দিচ্ছে।

প্রথমে তারা জানায়, নতুন ভাইরাসটি উহানের মাংসের বাজারে একটি বন্যপ্রাণী থেকে ছড়িয়েছে। সেটি বনরুই বা প্যাঙ্গোলিন হতে পারে।

কিন্তু বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সম্প্রতি জানায়, ভাইরাসটি বাদুড় থেকে ছড়িয়েছে। আমেরিকা আবার দাবি করছে, উহানের ওই মাংসের বাজারের পাশে চীনের যে গোপন ল্যাব রয়েছে, সেখান থেকে ভাইরাসটি ছড়িয়েছে। এরপর চীন আবার দাবি করে, উহানের মাংসের বাজার থেকে ভাইরাসটি ছড়ায়নি। অন্য স্থানের মতো এখানেও সাধারণভাবে কেউ সংক্রমিত হন। রোগপ্রতিরোধের চিকিৎসা ব্যবস্থা বের করতে ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল জানা খুব জরুরি। তাই বিষয়টি নিয়ে বিশ্বজুড়ে নানা ধরনের গবেষণা চলছে।

চাইনিজ সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের চিফ এপিডেমিওলজিস্ট গ্লোবাল টাইমসকে শুক্রবার বলেন, নভেল করোনাভাইরাসের উৎস সন্ধান করতে হলে অনেক দেশকে অন্তর্ভুক্ত করে অবশ্যই সমঝোতার ভিত্তিতে কাজে নামতে হবে। কোন দেশ আগে শুরু করবে সেটা কথা নয়, সম্ভাব্য সব দেশকে যুক্ত করতে হবে। চীনের এমন দাবি ইউরোপের বিজ্ঞানীরা মানতে নারাজ।

লিভারপুল ইউনিভার্সটির কয়েকজন গবেষক দ্য সানকে বলেছেন, চীন এখন নানা ধরনের কথা বলছে। ভাইরাসটি ২০১৯ সালের শেষ দিকে তাদের দেশ থেকেই ছড়িয়েছে।

আওয়াজবিডি ডেস্ক
আওয়াজবিডি ডেস্ক
https://www.awaazbd.com/author/awaaz-news

অনলাইন ডেস্ক

ads