/ins>

সর্বত্র তোলপাড়, পরিবারে শোকের ছায়া

হবিগঞ্জে রহস্যে ঘেরা জোড়া খুন

মোঃ নাবিদ মিয়া, হবিগঞ্জ প্রতিনিধি

পরিবারে নেমেছে শোকের ছায়া। হবিগঞ্জে রহস্যে ঘেরা জোড়া খুনের ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে উপজেলাব্যাপী সর্বত্র তোলপাড় চলছে। ঘটনাটি ঘটেছে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলা কুর্শি ইউনিয়নের সাদুল্লাপুর গ্রামে।

রবিবার ১৩ মে রাত ১১ টার দিকে কে বা কারা উল্লেখিত গ্রামের মৃত রাজা মিয়ার স্ত্রী মালা বেগম(৫০) ও তার পুত্রবধূ রুমি বেগম(২২) কে নির্মমভাবে খুন করে। এ হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত থাকার সন্দেহজনক ৪ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। এ তথ্য নিশ্চিত করেছে থানা পুলিশ।

/ins>

সরেজমিন গিয়ে জানা যায়, মৃত রাজা মিয়ার পুত্র লন্ডন প্রবাসী আকলাক চৌধুরীর মা মালা বেগম ও তার পুত্রবধূ রুমি বেগম বসবাস করতেন তাদের ঘরে। পুরুষ লোক কেউ বাড়িতে না থাকায় দিনের বেলা ও ঘরের গেইট তালা লাগিয়ে রাখতেন।

/ins>

এ ব্যাপারে রুমির ভাই পল্লী চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, তার বোন রুমির চোখে সমস্যা হয়েছে এজন্য ফোন করে আমাকে ঔষধ আনতে বলে, আমি ঔষধ কিনে একই গ্রামের তালেব মিয়ার কাছে ঔষধ কিনে দেই আমার বোনকে দেওয়ার জন্য। তালেব মিয়ার কাছে ঔষধ দেওয়ার কয়েক ঘন্টা পরেই বোন ও তার শাশুড়ি খুন হওয়ার খবর পাই। বোন ও তার শাশুড়ির নির্মম খুন মেনে নিতে পারছেন না তার ভাই, বোন, বোন বলে চিকিৎকার করে বার,বার জ্ঞান হারাচ্ছেন রুমির ভাই।

এলাকাবাসী জানান,হঠাৎ আমরা শুনতে পাই আগুন, আগুন বলে চিৎকার, দৌড়ে গিয়ে দেখি রুমি ও তার শাশুড়ি রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে পড়ে আছে। তাদের উদ্ধার করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষনা করেন।

/ins>

খবর পেয়ে থানা এসে পুলিশ লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করেন। ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেছেন প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি ও জনপ্রতিনিধিগণ। কি কারনে খুন হয়েছে এবং কেন? সত্য উদঘাটন করতে প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগের তৎপর লক্ষ করা যাচ্ছে। এ নির্মম খুন যেন মানতে পারছেন তার আত্মীয় স্বজনসহ কেউই। সত্য ঘটনা উদঘাটন করে প্রকৃত খুনীদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবি করছেন এলাকাবাসী ও বিশিষ্টজনেরা। কি কারনে এ হত্যাকান্ডটি ঘটেছে এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে সবার মনে।

/ins>

Comments With Facebook