/ins>

বোরহানউদ্দিনে চলছে প্রশাসন কে ফাঁকি দিয়ে জমজমাট অবৈধ হুন্ডির ব্যবসা

বরিশাল ব্যুরো

বোরহানউদ্দিন আব্দুল জব্বার কলেজ গেটে বাসা ভাড়া নিয়ে দীর্ঘ দিন যাবত বিভিন্ন দেশে জমজমাট হুন্ডির ব্যবসা চালানো অভিযোগ উঠেছে সিঙ্গাপুর প্রবাসী শাকিল ও তার মামা নেছারউদ্দিনের বিরুদ্ধে।

এতে সরকার মোটা অংকের বৈদেশিক মুদ্রা আদায় থেকে বি ত হচ্ছে। এদিকে ঘর মালিক নজরুল ইসলাম স্বীকার করে তাদেরকে বাসা থেকে নামানোর কথা বলেন।

সূত্রমতে জানা গেছে, মো: শাকিল সিঙ্গাপুর থাকাকালিন সিঙ্গাপুর, সৌদি আরব সহ বিভিন্ন দেশের সাথে তার মামা নেছারউদ্দিনের মাধ্যমে দীর্ঘদিন যাবত হুন্ডির ব্যবসা করতেন।

/ins>

শাকিল এখন দেশে এসে আব্দুল জব্বার কলেজ গেটে বাসা ভাড়া নিয়ে তার আপন খালাতো ভাই সিঙ্গাপুর প্রবাসী কুঞ্জেরহাটের বাবলু’র মাধ্যমে অবৈধ ভাবে এ রমরমা হুন্ডির ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

/ins>

তার ভগ্নিপতি মো: রিপন কে দিয়ে উদয়পুর রাস্তার মাথায় সোনালি আলো ট্রাভেলস এর আড়ালেও এ হুন্ডির ব্যবসা করাচ্ছেন। শাকিল ও তার মামা নেছারউদ্দিন জেলার বিভিন্ন উপজেলায় মোটরসাইকেল যোগে এ ব্যবসা করেন। শাকিলের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল যার মূল্য প্রায় ৩ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা।

এ হুন্ডির ব্যবসা করে অল্পদিনে আঙুলফুলে কলাগাছে রুপান্তির হচ্ছে শাকিল। কিন্তু মোটা অংকের বৈদেশিক মুদ্রা থেকে বি ত হয়েছে সরকার।

/ins>

এ দিকে সচেতন মহল মনে করেন সরকার যে পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা থেকে বি ত হয়েছে তা কি শাকিল এবং তার পরিবারের কাছ থেকে উদ্ধার করতে পারবে না কি এভাবেই অবৈধই বৈধ ব্যবসা হিসাবে চলবে।

এখন দেখার পালা তার বিরুদ্ধে প্রশাসন কি করে। নাকি আইনের ফাঁকফোকের চলবে তার অবৈধ এ হুন্ডির ব্যবসা।

/ins>

এব্যাপারে শাকিলের ভগ্নিপতি মো: রিপন জানান, শাকিল ভাই সিঙ্গাপুর থাকাকালিন সময় আমাদের এলাকার লোকজন কে ১০/২০ হাজার টাকা দিতে বললে আমি দিতাম। পরে তারা আবার টাকা দিয়ে দিতো। কিন্তু আমরা হুন্ডির ব্যবসা করি না।

এব্যাপারে মো: শাকিল তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমরা এ ব্যবসা করি না। আমি দেশে এসেছি ৮ মাস। এখন ভাবছি অন্য ব্যবসা করবো।

এব্যাপারে ঘর মালিক মো: নজরুল ইসলাম জানান, ওরা দীর্ঘ দিন যাবত এ ব্যবসা করে আমি শুনেছি। ওদেরকে বাসা ছাড়তে বলেছি।

Comments With Facebook
সর্বশেষ